রাউজান নিউজ

১২ সেপ্টেম্বর রাউজানে আসছে ইয়াং বাংলা সেক্রেটাররিয়েট ঃ আপনিও আসছেন তো ?

মীর আসলাম(রাউজাননিউজ) :
সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশন (সিআরআই) এর সাথে যুক্ত ইয়াং বাংলা সেক্রেটাররিয়েট দেশের বিভিন্ন স্থানে বিজ্ঞান মনষ্ক, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী উদ্যোমী তরুণদের গড়া সংগঠনকে নিয়ে কাজ করছে। এই সংগঠন সামাজিক, মানবিক ও শিক্ষার জন্য কাজ করে আসা তরুন সংগঠকদের প্রেরণা দান করতে বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়াড ২০১৮ প্রদান করবে। উদ্যোমী তরুনরা নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি হিসাবে পেতে পারেন জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়াড ২০১৮। এই অ্যাওয়াড দেয়া হবে যারা বিভিন্ন সংগঠনের ব্যানারে কাজ করে দেশ ও সমাজকে অগ্রগতির দিকে নিয়ে যাচ্ছে। উল্লেখ্য যে, সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশন (সিআরআই) এর কাজ আত্মবিশ্বাসী তরুনদের মাধ্যমে সমাজ পরিবর্তন ও দেশ গড়ার কাজে সম্পৃক্ত করা। এই মহৎ উদ্যোগটি গ্রহন করেছেন বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য দৌহিত্র সজীব ওয়াজেদ জয়। তাঁর উদ্দেশ্য জয় বাংলা শ্লোগানে আমাদের তরুন সমাজের বুকে দেশত্ববোধ জাগ্রত করা। মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতার প্রেরণায় বিশ্বাসীদের তরুনদের দেশের বৃহত্তর প্লাটফর্মে একত্রিত করা।

সুখবর হচ্ছে একাজে আগ্রহী তরুনরা এই প্রতিষ্ঠানে নিবন্ধিত হতে হবে। নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানে কর্মের দক্ষতা প্রমান করে তারা ঈজও/ণড়ঁহম নধহমষধ আয়োজিত জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ড ২০১৮ জিততে পারবে।
ইয়াং বাংলা সেক্রেটাররিয়েট এর একদল সংগঠক ১২ সেপ্টেম্বর আসছেন রাউজান কলেজ ক্যাম্পাসে। তারা রাউজানের সমন্বয়ককে সাথে নিয়ে জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়াড ২০১৮ পেতে আগ্রহী তরুনদের
নিবন্ধন করাবেন। সমবেত তরুনদের সাথে বসে জয় বাংলার গল্প করবেন। এই সংগঠনের এক শুভাকাংঙ্খি মোহাম্মদ আসিফ জানিয়েছেন রাউজানের নিবন্ধন ও তরুনদের সাথে গল্পে উপস্থিত থাকবেন রাউজানের তরুন সমাজের প্রিয় ব্যক্তিত্ব উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শামীম হোসেন রেজা।
নিবন্ধিত হওয়ার জন্য যেসব কাগজপত্র দরকার হবে ঃ
*১ কপি ছবি
কোন সংগঠনের পক্ষে প্রতিনিধিত্ব করবেন ওই সংগঠনের ছাড়পত্র।
*সংগঠনের কার্যক্রমের প্রোফাইল
*নিজের ভোটার আইডি/জন্ম সনদ/ জাতীয়তা সনদপত্র।
আপনি উদ্যোমী হলে যেসব বিষয়ে জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়াড -২০১৮ এর জন্য আবেদন করতে পারবেন।
১। জেন্ডার ব্যালান্স/ লিঙ্গ সমতা
২। উদ্ভাবন ও উদ্যোক্তা
৩। সাংস্কৃতিক আন্দোলন
৪। স্পোর্টস এবং ফিটনেস/ খেলাধুলা ও শরীরচর্চা
৫। দক্ষতা উন্নয়ন
৬। শিক্ষা ও কারিগরি
৭। পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তন
৮। অন্তর্ভুক্তির জন্য শিক্ষা
৯। জনসচেতনতামূলক উদ্যোগ
১০। প্রতিবন্ধী মানুষদের ক্ষমতায়ন
১১। কমিউনিটি ডেভেলপমেন্ট / সামাজিক উন্নয়নে অবদান