রাউজান নিউজ

চুয়েটে ‘আইটি বিজনেস ইনকিউবেটর’ নির্মাণে আইসিটি বিভাগের প্রতিনিধি দলের সাইট পরিদর্শন

অামির হামজা (রাউজান নিউজ)ঃ

চুয়েটে ‘আইটি বিজনেস ইনকিউবেটর’ নির্মাণে আইসিটি বিভাগের প্রতিনিধি দলের সাইট পরিদর্শন করেন। চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়েট)-এ নির্মিতব্য ‘আইটি বিজনেস ইনকিউবেটর’ নির্মাণের লক্ষ্যে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগের একটি প্রতিনিধি দল নির্ধারিত সাইট পরিদর্শন করেছেন।

গত (৯-সেপ্টেম্বর) রোববার সকালে চুয়েটের ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম মহোদয় প্রতিনিধি দল সমেত বিশ্ববিদ্যালয়ের পিএমই ভবনের পাশে অবস্থিত আইটি বিজনেস ইনকিউবেটরের জন্য নির্ধারিত সাইট সরেজমিনে পরিদর্শন করেন।

প্রতিনিধি দলের সদস্যরা হলেন- আইসিটি বিভাগের প্রকল্প পরিচালক জনাব মোঃ জহুরুল ইসলাম, পরামর্শক প্রতিষ্ঠান ইঞ্জিনিয়ার্স কনসোর্টিয়াম লিমিটেড (ইসিএল)-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব মোঃ আবদুচ ছাত্তার, ইসিএল’র চেয়ারম্যান জনাব হাজী মোঃ দেওয়ানুজ্জামান, স্থপতি মোঃ শাহ আলম, প্রকৌশলী মোঃ রবিউল হোসেন প্রমুখ।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন চুয়েটের রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. ফারুক-উজ-জামান চৌধুরী, ছাত্রকল্যাণ পরিচালক অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মশিউল হক এবং প্রধান প্রকৌশলী জনাব মোঃ সিরাজুল ইসলাম।

পরে ভাইস চ্যান্সেলর কার্যালয়ে পরে প্রতিনিধি দলটি চুয়েটের ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলমের সাথে সাক্ষাৎ ও মতবিনিময় করেন। এ সময় তাঁরা আইটি বিজনেস ইনকিউবেটর নির্মাণে চুয়েট কর্তৃপক্ষের কাছে সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন। মতবিনিময়কালে সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের পক্ষ থেকে জানানো হয়- প্রকল্পটি বাস্তবায়নের মাধ্যমে দেশীয় আইটি খাতে সফল উদ্যোক্তা তৈরি এবং বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে উদ্ভাবনী কার্যক্রমকে উৎসাহিত করা হবে। পাশাপাশি আইটি শিল্পে বিশ্বব্যাপী বাংলাদেশের সুযোগ আরও অবারিত করার মাধ্যমে তথ্যপ্রযুক্তি খাতের আয় প্রত্যাশিত মাত্রা অর্জন করতে সক্ষম হবে।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের তত্ত্বাবধানে দেশের বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে সর্বপ্রথম চুয়েটে আইটি বিজনেস ইনকিউবেটর নির্মাণ প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হচ্ছে। সম্পূর্ণ সরকারি (জিওবি) অর্থায়নে প্রায় ৭৭ কোটি টাকা প্রাক্কলিত ব্যয়ে প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হবে। প্রকল্পের আওতায় চুয়েট ক্যাম্পাসে ১০ তলা ভবনের ৭ তলা পর্যন্ত ইনকিউবেশন ভবন তৈরি হবে।