রাউজান নিউজ

স্বরণকালের ভয়াবহ শিলাবৃষ্টি! আহত শতাধিক মানুষ

পাবনা প্রতিনিধি :

পাবনার চাটমোহরে (৩১-মার্চ) শুক্রবার দুপুরে স্বরণকালের ভয়াবহ শিলাবৃষ্টির ঘটনা ঘটেছে। এ ঝড় বৃষ্টি ও শিলের আঘাতে এ অঞ্চলের প্রায় শতাধিক নারী-পুরুষ আহত হয়েছেন। এছাড়া ঘরবাড়ি ও ফসলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। বিশালাকৃতির শিলের আঘাতে অনেক নারী-পুরুষ রক্তাক্ত অবস্থায় আহত হয়ে হাসপাতালে ছুটে আসেন। আহতদের মধ্যে অর্ধশতাধিক নারী-পুরুষকে চাটমোহর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়া অনেকে স্থানীয় চিকিৎসকের কাছে চিকিৎসা নিয়েছেন।

হাসপাতালে গিয়ে দেখা গেছে, ঝড়ের পর থেকেই রোগীর ভিড় ক্রমশ বাড়তে থাকে। বড় বড় শিলের আঘাতে অধিকাংশ মানুষের মাথায়, চোখে ও মুখে রক্তাক্ত জখম হয়েছেন। রোগীদের ভিড় সামলাতে হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসকরাও হিমশিম খান। হাসপাতালের ভেতরে কান্নার রোল পড়ে যায়।

এছাড়া আম,লিচু, গম, রসূন, খেসারীসহ অন্যান্য ফল ও ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। বেশ কিছু এলাকায় বিদ্যুতের তার ছিড়ে যায়। শিলের আঘাতে শত শত ঘরের টিনের চালা ভেঙ্গে যায়। একেকটি শিলের ওজন আড়াইশো থেকে তিনশ গ্রাম পর্যন্ত বলে জানান প্রত্যক্ষদর্শীরা।

চাটমোহর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক মো. আসাদুল ইসলাম মন্ডল জানান, বেশির ভাগ রোগী শিলের আঘাতে রক্তাক্ত জখম হয়েছেন। প্রায় অর্ধশতাধিক রোগীকে হাসপাতালে ভর্তি রাখা হয়েছে। অন্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। বেশির ভাগ রোগীর মাথা ফেটে গেছে বলে জানান ওই চিকিৎসক।

উপজেলার বিলচলন ইউনিয়নের বাসিন্দা প্রভাষক ইকবাল কবির রঞ্জু জানান, স্মরণকালের এতো বড় শিল-এর আগে পড়তে দেখা যায়নি বা শিলের আঘাতে এতো মানুষ আহত হওয়ার ঘটনাও ঘটেনি। ঘটনাটি অত্যন্ত মর্মান্তিক।

ক্ষতির ব্যাপারে জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সরকার অসীম কুমার জানান, উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে খোঁজ খবর নেয়া হচ্ছে। অনেক মানুষ শিলের আঘাতে আহত হয়েছে বলে জেনেছি। ক্ষতির পরিমাণ নিরুপণ করে পরে বিস্তারিত জানানো যাবে।