রাউজান নিউজ

রাউজানে আরো এক শিক্ষার্থী রক্ষা পেলো বাল্যবিবাহ থেকে

মীর আসলাম (রাউজান নিউজ)ঃ
রাউজানে অপ্রাপ্ত বয়ষ্কা শিক্ষার্থীদের বিয়ে বন্ধে দৃঢ সংকল্প নিয়ে মাঠে নেমেছেন রাউজান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শামীম হোসেন রেজা। গত দুদিনে তিনি বাল্য বিয়ে বন্ধ করেছেন দুটি। ২৭ নভেম্বর সোমবার সর্বশেষ বিয়েটি বন্ধ করেন উপজেলার কদলপুরে। এর আগের দিন রোববার বাল্য বিয়ে বিয়ে বন্ধ করা হয় বাগোয়ানে। সোমবার কদলপুর গ্রামে যেই শিক্ষার্থীকে বিয়ে দেয়া হচ্ছিল তার নাম জেরিন সুলতানা (১৩)। সে কদলপুর স্কুল এন্ড কলেজের সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী ওই এলাকার জাহাঙ্গীর আলমের কন্যা। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বলেছেন কদলপুর বিদ্যালয়ে সংরক্ষিত কাগপত্রে জেরিনের জন্ম তারিখ ছিল ১১ নভেম্বর ২০০৪ ইংরেজী। এই বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে তিনি বিয়ে বন্ধের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলেন স্থানীয় চেয়ারম্যান তসলিম উদ্দিন চৌধুরীকে।

চেয়ারম্যান জেরিন সুলতানার পরিবারে বিয়ে বন্ধের পরামর্শ দিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অফিসে যেতে বলেন। চেয়ারম্যানের এই কথা শুনে জেরিনের অভিভাবকরা সেখানে যায়। ডেকে নেয়া হয় বর পক্ষকে। গতকাল সন্ধ্যায় ইউএনও কার্যালয়ে উভয় পক্ষকে বাল্য বিয়ের বিষয়ে সতর্ক করে এই আইনে শাস্তির কথা জানান। এর কুফল সম্পর্কেও ধারণা দেন। বৈঠকে উপস্থিত সকলেই ইউএনও পরামর্শ অনুসারে বিয়ে বন্ধের সিদ্ধান্তের কথা জানান। তারা বিয়ে থেকে বিরত থাকবেন বলে মুচলেকা দেন। উল্লেখ্য যে, জেরিনের সাথে বিয়ে আয়োজন ছিল নোয়াপাড়া ইউনিয়নের কচুখাইন এলাকার মো. রাজা মিয়ার ওমান প্রবাসী পুত্র মো. হাছানের সাথে।