রাউজান নিউজ

বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে রাউজানের যুবকের মৃত্যু

আমির হামজা, (রাউজান নিউজ)ঃ

চট্টগ্রামের রাউজানের বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে নগরীতে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল ২১ নভেম্বর (মঙ্গলবার) রাত আনুমানিক আড়াইটার দিকে চট্টগ্রাম নগরীর বাহির সিগনাল এলাকায় চট্টগ্রাম ওয়াসার পাইপলাইনের কাজে নিয়োজিত থাকা অবস্থায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে গুরুতর আহতাবস্থায় রাত সাড়ে তিনটার দিকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। বিগত পাঁচ বছর পূর্বে থেকেই ওয়াসার কাজ করে আসছিল।

প্রতিদিনের ন্যায় ওয়াসার পাইপলাইন বসানোর কাজ করতে গিয়ে স্থানীয় লোকজনের সাথে কথা বলে জানা গেছে রাউজানের পূর্ব গুজরা ইউনিয়নের ছিপাতলী গ্রামের রহমত আলী মাস্টারের বাড়ীর মৃত বাহাদুল করিমের দুই পুত্র ও দুই কন্যার মধ্যে পরিবারের তৃতীয় সন্তান মোবারক আলী দীর্ঘদিন ধরে মহাসড়কে গাড়ীর চালাতেন। বিগত পাঁচ বছর ধরে তিনি চট্টগ্রাম ওয়াসার ক্রেন চালক হিসেবে কাজ করে আসছিলেন। মোবারক আলীর চাচাতো ভাই দিদারুল আলম জানান, মোবারক ছিল পরিবারে খুবই শান্ত প্রকৃতির। ছোটকাল থেকেই সে সহজ সরল জীবনযাপনে অভ্যস্ত ছিল। পরিবারের হাল ধরতে সে লেখাপড়ার পাঠ চুকিয়ে গাড়ীর চালক হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। বিগত দুই বৎসর পূর্বে একই ইউনিয়নের আন্ধারমানিক সিকদার বাড়ীর আবদুল জলিলের কন্যা প্রিয়া আকতারকে বিয়ে করে ঘরে তোলেন। তাদের দাম্পত্য জীবনে ১১ মাস বয়সী তানজু আকতার নামের এক কন্যা সন্তান রয়েছে। কর্মস্থলে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে তার মুত্যুর সংবাদ পরিবারে জানাজানি হলে সে সময় এক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের অবতাড়না হয়। পরিবারের সবার আহাজারি দেখে ১১ মাস বয়সী কন্যা সন্তানটি ফ্যাল ফ্যাল দৃষ্টিতে সবার দিকে বারবার তাকাচ্ছিলেন, বাবা আর বেঁচে নেই এই কঠিন সত্যটি উপলদ্ধি করার বয়স তার না হলেও তার নির্বাক চাহনিতে যেন ভর করে আছে রাজ্যের বিষন্নতা। পািরবারের সদস্যদের সাথে কথা বলে জানা গেছে মোবারক আলী কর্মস্থল থেকে বাড়ীতে আসলেই আদরের কন্যা সন্তানটিকে সব সময় বুকে আগলে রাখতেন। স্থানীয় লোকজনের অনেকেকেই বলতে শোনা গেছে, এত তাড়াতাড়ি মেয়েটি পিতৃহীন হয়ে গেলো, ভাগ্যের কি নির্মম পরিহাস।

মোবারক আলীর পরিবার ও তার চাচাতো ভাই দিদার ও এমরান জানান, ময়না তদন্ত শেষে লাশবাহী গাড়িতে করে মোবারক আলীর লাশ বিকেলে রাউজানের ছিপাতলী গ্রামে নিয়ে আসা হলে তার পরিবারের লোকজন ও স্বজনদের গগণবিদারী আহাজারিতে এলাকায় এক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের অবতাড়না হয়।
ভাইয়ের মৃত্যুর সংবাদ শুনে মোবারক আলীর বড় ভাই প্রবাস থেকে বাড়ীতে আসছে ছোট ভাইকে শেষ বিদায় জানাতে, সে দেশে পৌঁছার পর রাতেই তাকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে বলে খবর পাওয়া।