রাউজান নিউজ

চট্টগ্রাম শহরের অলিগলিতে গিটার হাতে ঘুরে বেড়িয়েছি

রাউজান নিউজ ডেস্ক ঃ

জনপ্রিয় ব্যান্ডদল এলআরবি। দলের প্রধান আইয়ুব বাচ্চু। নিজের জন্মস্থান বন্দরনগরী চট্টগ্রামে সুযোগ পেলেই গাইতে যান এ তারকা। এবার নিজ শহরে আইয়ুব বাচ্চু এবং তার দল এলআরবি যাচ্ছে একটি উৎসবের শো স্টপার হিসেবে। ৩ অক্টোবর থেকে শুরু হওয়া এ উৎসবের শেষদিন ৭ অক্টোবর চট্টগ্রামের জিইসি কনভেনশন সেন্টারে পারফর্ম করবে এলআরবি।

এ আয়োজনে অংশগ্রহণ ও সমসাময়িক প্রসঙ্গ নিয়ে আজকের ‘হ্যালো…’ বিভাগে কথা বলেছেন তিনি

নিজের শহরে গাইতে যাচ্ছেন, কেমন লাগছে?
নিজের দেশে যেখানেই গান করি ভালো লাগে অনেক বেশি। আর নিজের শহরের প্রতি অনুভূতিটাই অন্যরকম। কারণ এ শহরের সঙ্গে আমার অনেক স্মৃতি জড়িয়ে আছে। এ শহরের অনেক অলিগলিতে আমি গিটার হাতে ঘুরে বেড়িয়েছি। সে শহরেই যখন আবার গিটার হাতে দাঁড়াই পুরনো অনেক কিছু মনে পড়ে। এবারের আয়োজনের ক্ষেত্রেও ব্যতিক্রম কিছু হবে না। নিজের শহরে গান গাওয়ার অনুভূতি অন্যরকম।

এ আয়োজনে সঙ্গীতপ্রেমীদের জন্য বিশেষ কোন আকর্ষণ থাকছে?
এটি একটি বাইক ফ্যাস্টিভাল। আয়োজন যৌথভাবে করছে উইজার্ড শোবিজ এবং বিডি মোটর সাইক্লিস্ট। তাই সে রকম কোনো সুযোগ নেই বলেই জানি। তবে সারা দেশ থেকে আগ্রহীরা এখানে এসে ফ্রিস্টাইল স্টান্ট ও যে কোনো স্টান্ট ক্লাবের স্টান্ট প্রদর্শন করার সুযোগ পাবেন বলে আয়োজকরা জানিয়েছেন।

এখন অ্যালবাম প্রকাশের পক্ষপাতী নন কেউই। আপনাদের নতুন অ্যালবাম প্রকাশের ইচ্ছে আছে?
পরিকল্পনা আছে। আগে সবকিছু ঠিক হোক। শিল্পীদের প্রাপ্য মর্যাদা, রয়্যালিটি দেয়া হচ্ছে না। সবকিছুর একটা সুস্থ বণ্টনের ব্যবস্থা হোক। তারপর নিশ্চয়ই আমরা আনপ্লাগড করব। এ কালচারটা তো আমরা প্রথমেই এনেছি। এর জলজ্যান্ত উদাহরণ তো ‘ফেরারি মন’।

প্লেব্যাকে খুব কম গান করে সফলতা পেলেও অনিয়মিত কেন?
সিনেমায় গান করার ইচ্ছে আমার সবসময়ই ছিল। যেগুলো গেয়েছি বেশ জনপ্রিয় হয়েছে। তারপরও এখন আর নিয়মিত নই। একরকম অভিমান থেকে প্লেব্যাক করছি না। আমার গান দিয়ে, আমার ছবি ব্যবহার করে আমার নামে সলো অ্যালবাম বের করে মুনাফা লাভ করেছে কিছু কিছু অডিও কোম্পানি। যেখানে আমার কোনো যোগসূত্র ছিল না। সে অভিমান থেকেই গান করি না।

নতুন শিল্পীদের গান কীভাবে মূল্যায়ন করেন?
আমি সবসময় তারুণ্যের পক্ষে ছিলাম, আছি এবং থাকব। কারণ নতুনদের ভেতর অনেক প্রতিভা রয়েছে। আমরা যারা বড় আসনে বসে আছি, তাদের একটু সহযোগিতা পেলে তারাও একদিন অনেকদূর যেতে পারবে।

বর্তমান ব্যস্ততা কী নিয়ে?
এখন বেশিরভাগ ব্যস্ততা স্টেজ শো নিয়ে। সামনে বেশ কয়েকটি শো’তে অংশ নেব। সেজন্য প্র্যাকটিস চালিয়ে যাচ্ছি। স্টুডিওতেই বেশি সময় দেয়া হয়।