রাউজান নিউজ

পবিত্র লাইলাতুল মিরাজ ঃ কাগতিয়া দরবারে লাখ মানুষের সমাবেশ

রাউজাননিউজ ডেক্স॥

বছরের যে কয়টি রাত ফজিলতপূর্ণ তাঁর মধ্যে অন্যতম লাইলাতুল মিরাজ বা শবে মিরাজ। হযরত মোহাম্মদ মোস্তফা সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর জীবনের মর্যদাপূর্ণ অনেক অলৌকিক ঘটনা সমৃদ্ধ এই শবে মিরাজ। ২৬ শে রজব দিবাগত রাতে আখেরী নবী (দ:) আল্লাহর সাক্ষাতে বিশেষ বাহনে ঊর্ধ্বাকাশে গমন করেন। ইসলামের ইতিহাসে এই মহামর্যদাবান ঐতিহাসিক সেই সফরকেই বলা হয়ে থাকে পবিত্র শবে মিরাজ । ইসলামীক দাশনিকদের মতে মিরাজ এর অর্থ হচ্ছে ঊর্ধ্বগমন,। এই রাতে উম্মতে মুহাম্মদী (দ:) এর উপর ‘৫০’ ওয়াক্ত নামাজ ফরজ করা হয়। পরে আল্লাহ রাব্বুল আলামিন উম্মতে মুহাম্মদীর উপর ‘৫’ ওয়াক্ত নামাজ ফরজ করেন। যা ইসলামের বিধানে পাঁচটি ফরজের অন্যতম।
ইসলামী বিশেষজ্ঞদের মতে যে ব্যক্তি এই রাতে ২ রাকাত করে ১২ রাকাত নফল নামাজ আদায় করবেন এবং ১০০ বার দোয়ায়ে ইস্তিগফার (আস্তাগফিরূল্লাহ), ১০০ বার কালেমা তামজিদ, ১০০ বার দরূদ শরীফ পাঠ করবেন ওই ব্যক্তির গুনাহ আল্লাহ রাব্বুল আলামিন মাফ করবেন এবং তার দোয়া কবুল করবে। পবিত্র লাইলাতুল মিরাজ বা শবে মিরাজ এর এই দিবসটি বহু বছর আগে থেকে গুরুত্বের সাথে পালন করে আসছেন কাগতিয়া দরবারের পীর ছাহেব কেবলা ও দরবারের ভক্তমুরিদগণ। এই দিবসে গত বছর ইন্তেকাল করেছিলেন এই দরবারের পীর ছাহেব কেবলা। যাকে ভক্ত ও মুরিদগণ শ্রদ্ধা ভরে সম্বোধন করেন গাউছুল আজম(রাঃ) হিসাবে। বিশেষ মর্যদাবান এই রাতের সাথে এই দরবারের পীর ছাহেব কেবলা(রাঃ) ওফাত দিবস পালনের কর্মসূচি থাকায় সোমবার(২৪ এপ্রিল) সকাল)থেকে কাগতিয়া দরবারের দিকে মানুষের ঢল নামে। সকলেই দরবারের গিয়ে বিভিন্ন কর্মসূচি অংশ গ্রহন করেন। সন্ধ্যার পর সেখানে লাখ মানুষের সমাবেশ ঘটে। ইবাদত বন্দেগী করে দরবারের ভক্ত মুরিদগণ সারা রাত কাটাবেন।