রাউজান নিউজ

রাউজানে শিক্ষার্থীদের বরণ ও বিদায় অনুষ্ঠানে ইউএনও- শিক্ষার্থীরা দেশপ্রেমিক চরিত্রবান হিসাবে পরিচিতি হতে হবে

মীর আসলাম (রাউজান নিউজ)ঃ
রাউজান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শামীম হোসেন রেজা গশ্চি উচ্চ বিদ্যালয় ও সুরেশ বিদ্যায়তন স্কুলের নবীণ বরণ ও এসএসসি পরীক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেছেন তোমরা যারা স্কুলের গন্ডি পেরিয়ে কলেজে যাওয়ার প্রস্তুতিতে পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে চলেছো তোমাদের সবার চরিত্রের মাঝে ফুটিয়ে তোলতে হবে দেশপ্রেমিক ও আদর্শবান শিক্ষার্থীর পরিচয়। এই পরিচয়টুকু তুলে ধরতে পারলে গাশ্চ হাই স্কুল ও ব্যারিস্টার সুরেশ বিদ্যায়তনের সুনাম অক্ষুন্ন রাখা হবে। ২৬ জানুয়ারী তিনি রাউজান পৌরসভার ব্যারিস্টার সুরেশ বিদ্যায়তন ও গশ্চি উচ্চ বিদ্যালয়ের পৃথক দুটি সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

গশ্চি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ হানিফের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন প্রকৌশলী মোহাম্মদ হারুন, মাহমুদুর রহমান তালুকদার, ডা.এনামুল হক, সৈয়দ মোজাফ্ফর হোসেন, আলমগীর হায়দর, ফখরুল ইসলাম, আলমগীর হোসেন, দিলীপ দাশ গুপ্ত. আশুতোষ চৌধুরী, আশীষ বৈদ্য, জোনায়েদ ইসলাম, অদিতি চৌধুরী প্রমূখ। সুরেশ বিদ্যায়তনের অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিদ্যালয়ের পরিচালনা পরিষদের সভাপতি পৌরসভার প্যানেল মেয়র জমির উদ্দিন পারভেজ। শিক্ষক পিযুষ পালের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অশোক সরকার। বিশেষ অতিথি ছিলেন পরিচালনা পরিষদের সদস্য কনকন চৌধুরী, মোবারক আলী, অরুন কান্তি শর্মা, ওবায়েদুল হক, সাংবাদিক মীর আসলাম, আওয়ামীলীগ নেতা আবদুল লতিফ, শিক্ষক তৃষ্ণা দাশ, সুজন বড়–য়া, প্রনব শীল, রনজিত দে, সোমা মজুমদার, প্রাক্তন ছাত্র অনুপ চক্রবর্তী, মোহাম্মদ আসিফ, মোজাম্মেল হক, বিদায়ী ছাত্র মো. সম্রাট, মো. সোহেল প্রমূখ। প্রধান অতিথি আরো বলেন, রাউজানে শিক্ষার সুষ্টু ও সুন্দর পরিবেশ রয়েছে। রাউজানের সাংসদের মতো একজন দক্ষ অভিবাবক সার্বক্ষণিক কাজ করছেন শিক্ষার জন্য। এ বিদ্যালয়ের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী হতে দুইবার জাতীয় পুরুস্কার অর্জন করেছেন। তার মতো সভাপতি থাকলে স্কুলের পরিবেশ পাল্টে যাবে। অনুষ্ঠানের সভাপতি প্যানেল মেয়র জমির উদ্দিন পারভেজ বলেন, সুরেশ বিদ্যায়তন এ উপজেলার মধ্যে মডেল স্কুল হিসাবে আত্ব প্রকাশ করবে অচিরেই। পাশের হার বৃদ্ধি পেয়েছে। শতভাগ পাশের হার নিশ্চিত করতে কাজ করছি। তিনি বলেন, পরিবর্তনের অঙ্গিকার নিয়ে এ বিদ্যানিকেতনকে ডিজিটার পদ্ধতি ক্লাস রোম করা হয়েছে। শিক্ষার্থীরা জ্ঞান অর্জনে দক্ষ শিক্ষক শিক্ষিকা নিয়োগ দেয়া হয়েছে। স্কুলের চারিপাশ ফুল ও ফলের বাগান সৃষ্টি করা হয়েছে। পরিচ্ছন্ন পরিবেশে পাঠদান দেয়া হয়।