রাউজান নিউজ

কাপ্তাই সড়কের দুই পাশে ফলজ ঔষধী গাছের চারা

রাউজান অংশ যানজটমুক্ত মোহরা থেকে মদুনাঘাট ভোগান্তি চরমে

চট্টগ্রাম কাপ্তাই সড়ক পথের রাউজান অংশটি এখন যানজটমুক্ত হয়েছে। গুরুত্বপূর্ণ এই সড়ক পথে নোয়াপাড়া পথেরহাট, পাহাড়তলী চৌমুহনীতে ঘন্টার পর ঘন্টা যানজট লেগে মানুষের অবর্ণনীয় ভোগান্তি ছিল। এখন এসবস্থানে সড়ক পথ প্রসস্থ করে ফুতপাতসহ চার লেন সড়ক পথ সৃষ্টি করা হয়েছে। এলাকার সূত্র সমূহ থেকে জানা যায়, নোয়াপাড়া ও পাহাড়তলী চৌরাস্তার মধ্যখানে করা হবে সৌন্দর্য বর্ধনে গোল চত্তর। যানবাহনের শৃংঙ্খলা আনার জন্য রাখা হবে ট্রাফিক পুলিশ। সড়ক পার্শ্ববর্তী এলাকা উরকিরচর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সৈয়দ আবদুল জব্বার সোহেল বলেছেন কাপ্তাই সড়ক পথের রাউজান অংশটিকে যানজট মুক্ত ও সৌন্দর্য্য বর্ধনের গত দুই বছর থেকে কাজ করছেন রাউজানের সাংসদ এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী। তিনি নিজেই সড়ক পথে দাঁড়িয়ে যানজটপূর্ণ এলাকার অবৈধ স্থাপনে ভাঙ্গিয়েছেন, এলোমেলো অবস্থায় থাকা বিদ্যুৎ খুঁটি নিারপদ দুরুত্বে সরিয়ে দিয়েছেন। নোয়াপাড়া ইউপি সদস্য ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বাবুল মিয়া বলেছেন এই সড়ক পথের রাউজান অংশে সড়ক বাতি জ্বলছে। স্থানীয় সাংসদের নিদ্দেশে দেয়া ১০ হাজার উন্নত জাতের ফলজ,বনজ ও ঔষধী গাছের চারা কাপ্তাই সড়কের রাউজান অংশের দুই পার্শ্বে লাগানো হয়েছে। বর্তমানে প্রতিটি চারা দর্শনীয় হয়ে উঠেছে।
তবে কাপ্তাই সড়ক পথে প্রতিদিন চলাচল করেন এই লোকজন বলেছেন সড়কটির রাউজান অংশ পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করা হলেও সড়কের সংযোগস্থল মোহরা(রাস্তার মাথা) থেকে মদুনাঘাট এলাকায় যানজটমুক্তির কোনো উদ্যোগই নেই। এই সড়ক পথটি এখন ক্ষত বিক্ষত, প্রতিদিন থাকে যানজটপূর্ণ অবস্থায়। প্রতিদিন যাত্রী সাধারণকে পোহাতে হয় নারকীয় দুর্ভোগ। এলাকার জনসাধারণ সূত্রে জানা যায়, চট্টগ্রামের সাথে যে কয়েকটি হাইওয়ে যুক্ত আছে সেসব হাইওয়ের মধ্যে অন্যতম একটি গুরুত্পূর্ণ সড়ক পথ হচ্ছে কাপ্তাই সড়ক। এই সড়ক পথে রয়েছে কাপ্তাই অংশে পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্র, কাপ্তাই লেক, সুইডেন বাংলাদেশ কারিগরি কলেজ, কর্ণফুলী পেপার মিল, শেখ রাশেল এভেবরি পার্ক, চন্দ্রঘোনা খৃষ্টান মিশনারী হাসপাতাল, চন্দ্রঘোনা দোভাষী বাজার, রাঙ্গুনিয়া অংশে চট্টগ্রামের অন্যতম বৃহত্তর ধান উৎপাদন এলাকা গুমায় বিল, রাঙ্গুনিয়া বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ, রাঙ্গুনিয়া থানা, রোয়াজারহাট, উপজেলা পরিষদ কমপ্লেক্স, রাসায়নিক কারখানা,কর্ণফুলী জুট মিল, ওয়াসার কর্ণফুলী পানির পাম্প, রাউজান অংশে রাউজান তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র,চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, চুয়েট স্কুল এণ্ড কলেজ, সনাতন ও বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বিদের তীর্থস্থান জগৎপুর আশ্রম, পাহাড়তলী মহামুনি মন্দির,ইমাম গাজ্জালী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ, পাহাড়তলী চৌমুহনী, রাউজান পিংক সিটি-২, গশ্চি নয়াহাট, ২৬ মেঘাওয়াট বিদ্যুৎ কেন্দ্র, ব্রাহ্মনহাট, পল্লী বিদ্যাৎ সমিতি-২ এর জোনাল অফিস, নোয়াপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়, এ অঞ্চলের বৃহত্তর বানিজ্যিক এলাকা নোয়াপাড়া পথেরহাট, ৫০ শষ্যার পাইওনিয়ার হাসপাতাল, কসমিক হাসপাতাল,মাস্টার দা সূর্য সেনের বাড়ী সূর্য সেন পল্লী, নোয়াপাড়া বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ, শেখ কামাল কমপ্লেক্স, হারপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়, মদুনাঘাট(হালদা নদী) ব্রিজ,হাটহাজারী অংশে মদুনাঘাট পাওয়ার স্টেশন, ওয়াসার পানি শোধনাগার, নজুমিয়াহাট, বুড়িশ্চর দারুল উলুম মাদ্রাসা, বাথুয়া মাদ্রাসা, কর্ণফুলী হাসপাতাল,কুয়েশ বুড়িশ্চর সম্মিলনী উচ্চ বিদ্যালয়, মহানগর এলাকায় সিটি কর্পোরেশন শেখ মোহাম্মদ কলেজ, কুয়েশ-অক্সিজেন সংযোগ,মোহরা সিডিএ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়সহ বহু গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠান। এসব প্রতিষ্ঠানের সাথে সংশ্লিষ্ট হাজার হাজার মানুষ প্রতিদিন এই সড়কে যাতায়াত করেন। জানা যায়, এই সড়কের সবচেয়ে যানজটপূর্ণ এলাকা হচ্ছে নজুমিয়াহাট। সড়ক পথের উপর অবৈধ ভাবে গাড়ির পাকিং, সড়কের উপর ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের স্তুপ করে রাখা মালামাল, বিক্ষিপ্ত ভাবে স্থাপন করা বিদ্যুৎ খুটি সড়ক পথটিকে সংকোচিত করে রাখায় নজুমিয়াহাট এলাকাটি যানজটমুক্ত হচ্ছে না। সড়ক পথের গাড়ী চালক, যাত্রী সাধারণ সকলেই মনে করেন কাপ্তাই সড়ক পথটি সুন্দর ও যানজটমুক্ত রাখতে জনপ্রতিনিধিদের ভূমিকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। রাউজানের সাংসদ যথাযত ভাবে এই ভূমিকা নেয়ায় রাউজান অংশটি এখন সুন্দর ও যানজটপূর্ণ পরিবেশ বিরাজমান আছে।